যে ৯ টি বিষয় প্যাট থেকে শিখে আপনিও তথ্য ভিত্তিক সাইট থেকে আয় করতে পারেন

যারা এফিলিয়েট মার্কেটিং বিষয়ের সাথে জড়িত তাদের  অনেকেই স্মার্ট পেসিভ ইঙ্কাম সাইটের (smartpassiveincome.com) প্যাট সম্পর্কে জানেন । অতি সফল অনলাইন তথ্য উদ্যোক্তাদের মধ্যে প্যাট অন্যতম। স্মার্ট পেসিভ ইঙ্কাম সাইটে তার মাসিক আয়ের যে প্রতিবেদন দেয়া আছে তাতে তার গত মাসের আয় (মার্চ ২০১৪) পচাত্তর হাজার ডলারের উপরে। তিনি যে পদ্ধতিতে সাইট তৈরি করেন তা অনেকের কাছেই একটা আর্দশ প্রনালী হয়ে গেছে। সম্প্রতি তিনি নতুন একটা সাইটের প্রথম আয় নিয়ে একটা লেখা লিখেছেন

about-pat

লেখাটিতে সাইট তৈরির বিভিন্ন দিক উঠে এসেছে। আমার জানা মতে বাংলাদেশে অনেকেই তথ্য ভিত্তিক সাইট তৈরি করে এফিলিয়েট মার্কেটিং কিংবা এডসেন্স থেকে আয় করার চেস্টা করছে। এই লেখাটি হতে তাদের অনেক কিছুই শেখার আছে। আমি বেশ কয়েকটি গুরত্বপূর্ণ বিষয় তুলে ধরার চেস্টা করছি।

  • রিসার্চ করতে  পর্যাপ্ত  সময় নেয়া হয়েছে। এই পর্বটি খুবই গুরুত্বপুর্ণ। যেই বিষয়ে সাইট তৈরি হবে তা নিয়ে পর্যাপ্ত সময় নিয়ে বিভিন্ন দিক নিয়ে গবেষণা করতে হবে।
  • সাইটের সাফল্যের সাম্ভাব্যতা বিষয়ে সময় নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে।
  •  সাইটটি চালু হওয়ার পর সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে – যদিও গতি কিছুটা মন্থর। বলাবাহুল্য প্যাটের আরো কয়েকটি সাইট আছে। তাকে সেগুলোর জন্য সময় দিতে হয়।
  • সাইটের পাঠক সম্পর্কে অবগত হওয়া , পাঠক চক্র তৈরি এবং উন্নত মানের কনটেন্ট তৈরি এই সাইটের প্রধান কৌশল ও মূলমন্ত্র। বিষয়টি আসলে সে অভিজ্ঞতার আলোকেই ঠিক করেছে। এই বিষয়গুলো বুঝতে প্রথম সাইটের ক্ষেত্রে তার প্রায় দেড় বছর লেখেছিলো। বলা যায় ওয়েবে সাফল্যের পেছনে এই বিষয় গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
  • সাইটটি যেহেতু একটা নির্দিস্ট শ্রেনির পাঠকের জন্য তাই সে বিভিন্ন সেই শ্রেনীভুক্ত পাঠকের কাছে পৌছানোর জন্য তাদের বিভিন্ন এসোসিয়েশনের সাথে যোগাযোগ করেছে, সংস্লিস্ট কিছু ব্যক্তির সাক্ষাৎকার নিয়েছে আর তা প্রচার করেছে। এতে করে ফুড ট্রাক সংস্লিস্ট বিভন্ন ফোরামে সাইটটি সম্পর্কে আলোচনা হয়েছে। অফলাইনে নির্দিস্ট শ্রেনীর পাঠকের সাথে যুক্ত হওয়াতে যেমন ট্রাফিক বেড়েছে তেমনি গবেষনা করে উন্নত মানের কনটেন্ট তাকে সার্চ ইঞ্জিনের অনুসন্ধান পাতায় শীর্ষ অবস্থান পেতে সাহায্য করেছে।
  • লিঙ্ক তৈরির ক্ষেত্রে সে এখনো পুরনো কিছু কৌশল ব্যবহার করছে । তবে খুব সর্তকতার সাথে । অনেকে মনে করেছে লিঙ্ক বিল্ডিংয়ের সেই সব কৌশল মরে গেছে। প্যাট বলছে একেবারে অকার্যকর নয়।
  • নেগেটিভ এস ই ও – প্যাট তার সাইট সম্পর্কে অনেক আগেই বিভিন্ন মাধ্যমে জানিয়েছিলো। তার সাইটের ঠিকানা জানতো বলে অনেকে তার সাইটের সার্চ ইঞ্জিন অবস্থান অবগমনের জন্য নিম্ম মানের লিঙ্ক তৈরি করেছিলো।নেগেটিভ এসইও থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য প্যাট যা করেছে আপনিও তাই করতে পারেন যদি আপনার প্রয়োজন হয়। বাজে লিঙ্কগুলোকে গুগল ওয়েব মাস্টার একাউণ্ট থেকে ডিসবাউ করে দিতে পারেন। এতে গুগলের কাছে আপনার সাইটের ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন থাকবে। নেগেটিভ এসইও স্বত্তেও এই সাইটি অনেক গুলো কিওয়ার্ডের জন্য সার্জ ইঞ্জিনের অনুসন্ধান পাতায় শীর্ষ স্থানে অবস্থান করছে।
  • জরিপের বিষয়টি লক্ষনীয়। অনলাইনে জরিপে অংশগ্রহনের জন্য প্রনোদনা দেয়া হয়। কারা সেটি পাবেন তা র‍্যানডম প্রক্রিয়ায় নির্বাচন করা হয় । অনেক স্টেটেই এই ধরনের কমকান্ড অবৈধ ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। প্যাট কিভাবে শেষ পর্যন্ত বিষয়টি সম্পন্ন করলেন আসলে তাই আমাদের শেখার বিষয়।
  •  উপার্জনের বিষয়টি সাইটের ধরনের উপর নির্ভর করে। প্রতিটি সাইটের জন্য আলাদা আলাদা উপার্জন পরিক্লপনা নিতে হয়। এই পরিকল্পনা নেয়ার ক্ষেত্রে আপনি যে নিশ নিয়ে কাজ করেছেন সেই নিশ সম্পর্কে আপনার জ্ঞান , সেই বিষয়ে আপনার দক্ষতা সহ নানাবিধ বিষয় কাজ করে। প্যাটের একটি দল আছে। তাদের সাথে বসেও প্যাট এই উপার্জনের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছেন।

    এখানে উল্লেখ্য সাইটটি চালু হয়েছে প্রায় ছয় মাস হয়েছে। ইতিমধ্যে একধরনের জনপ্রিয়তাও পেয়ে গেছে । উপার্জনের বিষয়টি তারা এখনো সাইটে যোগ করেনি। এখানেই মূল শিক্ষনীয় বিষয় ।তথ্য ভিত্তিক সাইট যারা তৈরি করেন তারা শুরুতেই আয় করার চেস্টা করতে ব্যস্ত হয়ে পরেন। বাস্তবে তথ্য ভিত্তিক সাইট থেকে শুরুতেই উপার্জন করা যায় না। প্রথমে কাজ করতে হয় সাইটের জনপ্রিয়তা ও পাঠকচক্র তৈরিতে ( কমিউনিটি)।

    জনপ্রিয়তা তৈরির জন্য সাইটটিকে উন্নত মানের কনটেন্ট সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলতে হয়। তাই কনটেন্ট প্রথম তারপর তার প্রচার প্রয়োজন।  খেয়াল করে দেখুন প্যাট সেই কাজটিই করেছে। আয়ের উৎস গুলো যদি আপনি খেয়াল করেন তাহলে দেখবেন তারও বৈচিত্রতা আছে। যে সাইট কেবল একধরনের উৎস থেকে আয় করে তার ভবিষ্যত কখনো যেমনি নিরাপদ নয় তেমনি আয়ের পরিমানও বেশি হবে না। আয় বাড়াতে ও আয় নিয়মিত রাখতে তার তা বিভিন্ন উৎস থেকেই করতে হবে।

    আয়ের যা লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য ঠিক করা হয়েছে তা বাস্তবায়নে সময়ের দরকার হয়। তাই তারা তা ছয় মাস , ১ বছর কিংবা ২ বছরে সম্পাদন করবে বলে ঠিক করেছে। লক্ষ্যনীয় বিষয় সাইট নিয়ে আপনার স্বল্প মেয়াদী ও দীর্ঘ পরিক্লপনা থাকতে হবে। স্বল্প মেয়াদে আয়ের উৎস হিসাবে বিজ্ঞাপনকেই তারা প্রথম মাধ্যম হিসাবে নিয়েছে। এডসেন্স থেকে সাইটি প্রথম ৩ ডলার ১২ সেন্ট আয় করেছে। এই আয় তাদের প্রথম আয়। যাত্রা শুরু বলা যায়। বছর শেষে ৭০০ প্রতি মাসে ৭০০ ডলার আয় করবে বলে তারা আশাবাদী।

অনলাইন ব্যবসার সুযোগ নিয়ে আলোচনা

এই ধরনের বিষয় সহ অনলাইনে ব্যবসা করার অন্যান্য সুযোগ নিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন যায়গায় আলোচনা করতে যাবো ঠিক করেছি। আপনি যদি আপনার অঞ্চলে অনলাইন ব্যবসা সংক্রান্ত নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে যোগ দিতে চান তাহলে আমাকে জানতে এই ফরমটি পুরন করুন। আমি আপনার সাথে যোগাযোগ করবো। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

নেগেটিভ এসইও প্রতারণার সুযোগ করে দিচ্ছে

negative-seo-humming-bird

নেগেটিভ এসইও মানুষের নৈতিকতা নস্ট করতে সাহায্য করতেছে। খুব মজার একটা বিষয় লক্ষ্য করলাম। সাধারনতঃ ক্লায়েন্ট ছোট এসইও প্যাকেজ গুলো অর্ডার দিতো ।তারা নিশ্চিত হতে চাইতো যে কাজ করা হচ্ছে তাতে তাদের সাইটের জন্য উপকারে আসতেছে ।  ছোট অর্ডার আসলে পরীক্ষামূলক অর্ডার।  ছোট অর্ডারে  ইতিবাচক ফলাফল পেলে তারপর বড় অর্ডার দিতো। এখন শুরুতেই ক্লায়েন্টরা সবচাইতে […]

Continue reading...

বাংলাদেশের সাইটগুলো কেনো বাংলায় হওয়া উচিত

XPONENTWeb

বাংলাদেশের পাঠকের জন্য তৈরি অধিকাংশ সাইটই ইংরেজীতে।  এই বিষয়ে ফেইসবুকের বিভন্ন গ্রুপে ও আমার স্টাটাসে বিভন্ন সময় আমি লিখেছি। সম্প্রতি পারভেজ ভাই আমাকে ট্যাগ করে তার কারন জানতে চেয়ে একটা স্টাটাস দিয়েছেন। তার স্টাটাসের  উত্তরে এই পোস্টটি লেখা। সাইটগুলো কেনো ইংরেজীতে করা হয় তার ঠিক কারন জানি না। তবে আমার অনুমান হলো অনেকেই ওয়েবসাইটের কনটেন্টের গুরুত্ব […]

Continue reading...

যে ভাবে গুগল এডওয়ার্ড একাউন্টকে সাসপেনশান মুক্ত করলাম আর যা শিখলাম

google-adwords

আমার গুগল এডওয়ার্ড একাউন্ট সাসপেন্ড হয়ে ছিলো। আমি অতো গুরুত্ব দেই নাই কারন তখন গুগলে বিজ্ঞাপন  দেয়ার প্রয়োজন ছিলো না। নতুন একটা সার্ভিস প্রচার  করতে বিজ্ঞাপন দিতে গিয়ে দেখি একাউন্ট সাসপেন্ডেড। বিষয়টি একটু দুশ্চিন্তায় ফেললো। সাপোর্ট সেন্টারের সাথে  লাইভ চ্যাটে যোগাযোগ করলাম। এজেন্ট তাৎক্ষনিক সমাধান দিতে পারেনি। সে জানালো বিষয়টি নিয়ে এক্সপার্টদের সাথে কথা বলবে। […]

Continue reading...

অঞ্চল ভেদে ক্রেতাদের মনোভাব ভিন্ন হয়

ইউনিভার্সিটি কোর্সে সংকৃতি একটা পার্ট ছিলো। তাতে অঞ্চলভেদে মানুষের আচার আচরন , রীতিনীতি , মানুষিকতা ও স্বভাব সহ বিভিন্ন বিষয়গুলো আলোচনার বিষয় বস্তু ছিলো। এই বিষয়ে খুব পড়াশুনা করেছি তা না। তবে যেহেতু বিষয়টা নিয়ে কিছু আলোচনা শুনেছি তাই মানুষের চিন্তার প্যার্টান খেয়াল করি। আমাদের ক্লায়েন্টদের ৯০% হলো ইউএস এ/ক্যানাডা /ইউকের । আমার বিশ্বাস আউটসোর্সিংয়ে […]

Continue reading...

অনলাইনে ব্যবসা-ড্রপ শিপিং নিয়ে চেস্টা

dropshipping

অনলাইনে কি ধরনের ব্যবসা করবো এটা ঠিক করা ছিলো খুব সমস্যার। অনেক কিছু চেস্টা করেছিলাম। শুরুতে আমি ড্রপ শিপিং পদ্ধতিতে অনলাইন স্টোর করতে চেয়েছিলাম। । এই মডেলটা খুব চমৎকার। ড্রপ শিপিং পদ্ধতি আপনি উৎপাদনকারীদের সাথে একটা চুক্তি করতে হবে। তারা পণ্যের তথ্য ,ছবি ইত্যাদি দিবে। আপনি তা নিয়ে অনলাইনে স্টোর তৈরি করবেন। আপনার বিক্রি হওয়ার […]

Continue reading...

সোশ্যাল গ্রুপে আলোচনায় অংশগ্রহণ কমেন্ট মার্কেটিংয়ে প্রস্তুত করে

২০১০ সাল থেকেই বাংলাদেশ ভিত্তিক সোশ্যাল মিডিয়া গ্রুপ গুলোতে আমি সক্রিয়। গ্রুপ গুলোতে বিভিন্ন আলোচনা আমি মনোযোগ দিয়ে লক্ষ্য করতাম। প্রথম দিকে গ্রুপ গুলোতে দেখতাম মূলত সংযুক্তি শেয়ার হতো। খুব অল্প কিছু সদস্য হয়তো সেই পোস্টটিতে লাইক দিতো। দুই একজন শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ দিতো। প্রচুর সদস্য থাকা স্বত্তেও গ্রুপগুলোতে কোন আলোচনা জমে উঠতো না। […]

Continue reading...

ব্যবসা শুরুটা যেভাবে- সাহায্য পেতে খরচ (৩য় পর্ব)

লিটনের মাধ্যমে অনলাইনে কেনাকাটার ব্যবস্থা হওয়ায় হতাশা কিছুটা কেটে গেছিলো। বিশ্বাস করতে লাগলাম সাফল্য দেখবো। অভিজ্ঞদের সাহায্য  ঃ ভুল এড়াতে পদক্ষেপ যা করছি তা ঠিক মতো করছি কিনা তা জানার দরকার ছিলো। কারো তত্ত্বাবধানে থেকে কিংবা কারো কাজ থেকে যাছাই করে নেয়ার উপায় খুজঁতে লাগলাম। যখনি কোন তথ্যের দরকার হতো গুগলে সন্ধান করতাম। একবার কিছু […]

Continue reading...

ছুটি না নেয়ায় শরীর , মন ও কাজ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে

কারো কাজ কারো ভ্রমন নেশাঃ ভ্রমন ও অবসর নিয়ে তৈরি কয়েকটি সাইটে কাজ করেছি। অনেকেই জানে বেড়াতে যাওয়া পশ্চিমাদের কাছে খুব আকর্ষনীয় একটা বিষয়। তারা পরিকল্পনা করেই বেড়াতে যায়। অনেকে আছে আবার ভ্রমন পাগল। এক মহিলা ক্রেতা আমাকে  বলেছিলো,”আমি কেবল ৬৮ দেশের কথাই স্মরণ করতে পারছি, আমি নিশ্চিত এর বাইরে আমি অনেক দেশেই গিয়েছি”। তার […]

Continue reading...

যেভাবে শুরু অনলাইন ব্যবসাঃ সাইট তৈরি (২য় পর্ব)

অনলাইনে ব্যবসা করা মানে অবশ্যই আপনার ওয়েব সাইট তৈরি করতে হবে।অনলাইনে ব্যবসা কিভাবে করতে হবে তাই নিয়ে যত পড়াশুনা করলাম সব যায়গাতেই সাইটটি যথাযত ভাবে তৈরি ও প্রচারের উপর বেশ গুরুত্ব ছিলো।আমি বদ্ধপরিকর  হলাম  ব্যবসায়ের জন্য একটি সাইট তৈরি করবো। এভাবেই শুরু হবে। তখন আমি একেবারে নতুন। জেনেছি সাইট তৈরি করতে হবে । কিন্তু প্রতিটি […]

Continue reading...